মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
কাজী আঃ মান্নান নিকাহ রেজিঃ বিধিমালা লঙ্ঘন করে চাকুরি করছেন উদাখালী বিদ্যালয়ে গাইবান্ধা পৌর ঘাঘট লেক উন্নয়ন প্রকল্পের দুটি কাজের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করলেন হুইপ গিনি পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রিন্টুসহ ৬ জুয়ারু আটক সালমান শাহ’র জন্মদিনে শাবনূরের ভিডিওবার্তা ৫৯ অনিবন্ধিত আইপি টেলিভিশন বন্ধ করল বিটিআরসি সাদুল্যাপুরে ভাইয়ের লাঠির আঘাতে বড় ভাই নিহত তৃণমূল নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগের প্রাণ -তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদ মাদক খাতে বছরে লেনদেন কয়েক হাজার কোটি টাকা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাঁশের ভেলায় চরে আটরশি দরবার শরীফে ছুটছেন ভক্তরা গাইবান্ধায় প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে জেলা তথ্য অফিসারের মতবিনিময়
নোটিশ

জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ : সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকার জন্য গাইবান্ধা  জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা , উপজেলা, থানা, বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান/এলাকায় প্রনিতিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবিসহ সরাসরি অথবা ডাকযোগে সম্পাদক বরাবর আবেদন করুন

প্রকাশক সম্পাদক, সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে , গোডাউন রোড, কাঠপট্টী, গাইবান্ধা। ফোন: : ০১৭১৫-৪৬৪৭৪৪, ০১৭১৩-৫৪৮৮৯৮,

 কোকাকোলার নামে ফাঁদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাবধান!

অনলাইন ডেস্ক / ১১৯ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ন

দিন বদলায়, কিন্তু হ্যকারদের প্রতারণার ফাঁদ বদলায় না। প্রতিনিয়ত কৌশল বদলে প্রতারণার জাল বিস্তার করেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এসব ফাঁদে পা দিয়ে অনেকেই সর্বস্ব হারান। হ্যকাররা ফিসিং লিংকের মাধ্যমে এসব প্রতারণা করে থাকেন। 

ফিসিং লিংক কী? 
সাইবার বিশেষজ্ঞরা বলছেন, একটি নিরাপদ এবং বৈধ ওয়েবসাইটের লিংকের সংগে মিল রেখে এক ধরনের ওয়েবলিংক তৈরি করে হ্যাকাররা। মূলত এই ওয়েবসাইট হ্যাকারদেরই তৈরি এবং এর ওপর হ্যাকারদের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ থাকে। মূল সাইটের মতো হুবহু দেখতে ওই লিংকে প্রবেশ করলে অ্যাকাউন্টের আইডি-পাসওয়ার্ড দিতে বলা হয় ব্যবহারকারীকে। একবার সেগুলো দিলেই প্রয়োজনীয় তথ্য চলে যায় হ্যাকারের কাছে। যে লিংক দিয়ে হ্যাকার ব্যবহারকারীকে নিজের ওয়েবসাইটে নেয় সেটিই ‘ফিশিং লিংক’।

সামাাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (http://tvlypc.tsade.net/cocacola/?_t=1622967579842#1622967580925) লিংক দেখা যাচ্ছে। লিংকটিতে ক্লিক করলে এই রকম একটি উইনডো আসবে। যেখানে বলা হয়েছে

অভিনন্দন!
আজ, ৬  জুন, ২০২১, আমাদের জরিপের জন্য নির্বাচিত হয়ে আপনি খুব ভাগ্যবান। মাত্র এক মিনিটের মধ্যে আপনি একটি দুর্দান্ত পুরস্কার পাবেন!

যারা জরিপে অংশ নিয়েছেন তাদের জন্য আমরা কিছু পুরষ্কার প্রস্তুত করেছি.

আপনার কেবল আছে ০ মিনিট এবং ০০ সেকেন্ড, এই জরিপের উত্তর দিতে!

তাড়াতাড়ি কর, পুরষ্কারের সংখ্যা সীমিত!

৪ এর ১ প্রশ্ন: আপনি কোকাকোলা জানেন?”

এসব প্রশ্নের উত্তর দিতে দিতে একসময় আপনার মেইল বা ক্রেডিট কার্ডের তথ্য চেয়ে বসবে। এখানেই বিপদ। যদি এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেন, তাহলে আপনি নিশ্চিত আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য খুঁইয়েছেন।

ফিশিং অ্যাটাকের শিকার হওয়া মানুষের মধ্যে মেয়েদের সংখ্যাই বেশি। এর মূল কারণ হলো ওয়েবসাইটের ইউআরএল লিংক সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা না থাকা এবং অনলাইনে খুব সহজে কাউকে বিশ্বাস করা। অনেকেই শুধু দেখতে একই রকম (ইন্টারফেস) হলেই বিশ্বাস করে ফেলেন এটা আসল ওয়েবসাইট। কিন্তু যে কেউই ফেসবুক/গুগল/ইয়াহু/ব্যাংকের ওয়েবসাইট ইত্যাদির মতো হুবহু সাইট নিজেরাও ক্লোন/তৈরি করতে পারবে। এই ধারণা না থাকার কারণেই ফিশিং অ্যাটাক অনেক বেশি শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। তাই আমাদের উচিত, কোনো ওয়েব লিংকে ক্লিক করা অথবা মূল্যবান তথ্য কোথাও ব্যবহার করার সময় সেই ওয়েবসাইট লিংকগুলোকে ভালোভাবে যাচাই করা।

প্রযুক্তিবিদরা বলছেন, প্রথমেই একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে, কোনো ব্র্যান্ডের কোম্পানি এসব ফিশিং লিংকের মাধ্যমে অফার বা আয়ের সুযোগ দেয় না। ফিশিং লিংকের নকল ওয়েবসাইটের সংগে মূল কোম্পানির ওয়েবসাইটের নাম-ঠিকানার মিল থাকে না। এসব ক্ষেত্রে প্রথম কাজই হলো সচেতনতা। লোভনীয় অফারের লিংক পেলেই সেখানে ক্লিক করা থেকে বিরত থাকতে হবে। ভুলবশতঃ কেউ ক্লিক করলে রেজিস্ট্রেশন করা থেকে বিরত থাকতে হবে। তাহলেই সুরক্ষিত রাখা যাবে নিজের অ্যাকাউন্ট।

সাইবার নিরাপত্তা বিশ্লেষক তানভীর হাসান জোহা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘পেশাদার ওয়েব ডেভেলপার দিয়ে কোনো সাইট হুবহু নকল করে আরেকটি সাইট বানালে একজন সাধারণ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী অনেক সময় সেগুলো বুঝতে পারেন না। তাই ফিশিং লিংক থেকে তেমন কোনো সাইটে গিয়ে নিজের তথ্য দিলে সেগুলো বেহাত হয়ে যায়। উইন্ডোজ পিসি ব্যবহারকারীদের থেকে অ্যান্ড্রয়েডভিত্তিক স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা এমন ঝুঁকিতে বেশি থাকেন। কারণ, অ্যান্ড্রয়েডে ইউআরএল লিংক দেখা যায় না। ফিশিং, হ্যাকিংয়ের অনেক পুরনো কৌশল। মেইলের ক্ষেত্রে মেইল সার্ভার অনেক ফিশিং সাইটকেই ‘স্প্যাম’ করে দেয়। তবে নতুন কিছু ফিশিং স্ক্যাম হচ্ছে যেখানে ফিশিং লিংকটা স্প্যাম ফোল্ডারকে বাইপাস করে সরাসরি ইউজারের ইনবক্সে চলে যাচ্ছে। ব্যবহারকারীরা সাধারণ মেইল মনে করে সেটাতে ক্লিক করছেন।

পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাজমুল ইসলাম বাংলাভিশন ডিজিটালকে বলেন, বিগত পাঁচ বছরে যতো অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে, তার ৯৫ ভাগ ফিশিং লিংক দিয়ে করা হয়েছে। তাই এসব লিংকে ক্লিকের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। এক্ষেত্রে কার্যকর পদক্ষেপ হলো- টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন চালু করে রাখা। এছাড়া লিংকের সঠিক বানান চেক করারও পরামর্শ দেন পুলিশের এই সাইবার কর্মকর্তা।

অনলাইনে এসব প্রতারণা থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখার সর্বোত্তম উপায় হলো, আজেবাজে লিংকে ক্লিক করা থেকে বিরত থাকুন। তাহলেই আপনি এসব অনলাইন প্রতারকের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারবেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: