শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৮ পূর্বাহ্ন
নোটিশ

জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ : সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকার জন্য গাইবান্ধা  জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা , উপজেলা, থানা, বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান/এলাকায় প্রনিতিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবিসহ সরাসরি অথবা ডাকযোগে সম্পাদক বরাবর আবেদন করুন

প্রকাশক সম্পাদক, সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে , গোডাউন রোড, কাঠপট্টী, গাইবান্ধা। ফোন: : ০১৭১৫-৪৬৪৭৪৪, ০১৭১৩-৫৪৮৮৯৮,

ঘাঘট নদী থেকে বালু উত্তোলন : ফসলি জমি ভাঙ্গন রোধে সাইদুলের আকুতি

স্টাফ রিপোর্টার / ১২৫ Time View
Update : সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১, ৬:৩০ অপরাহ্ন
Exif_JPEG_420

কতৃপক্ষের দৃষ্টি দিবেন কি? বালুমহাল আইনের তোয়াক্কা না করে মজিবর ঘাঘট নদীতে ড্রেজার মেশিন বোডিং করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে জমজমাট ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন । এতে করে আবাদি জমি সহ নদী রক্ষা বাঁধ যেকোনো সময় ধসে পড়ার আশঙ্কা করেছেন ভুক্তভোগী সাধারন জনগন ।

জানা গেছে, গাইবান্ধা সদর উপজেলার কুপতলা ইউনিয়নের পশ্চিম দূর্গাপুর গ্রামের জনৈক মজিবর কয়েকটি ড্রেজার মেশিনের মালিক । বাড়ির নিকটস্থ ঘাঘট নদী থেকে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করাই তার একমাত্র পেশা । তাই বালুখেকো মজিবর নামে বেশ পরিচিত ।

ইতিমধ্যে প্রশাসন একাধিকবার অভিযান চালিয়ে মেশিন অকেজো করে দিলেও বেশি মুনাফার লোভে ছাড়তে পারছেন না এ ব্যবসা । এ ব্যবসা দিয়েই এখন আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ । দুই সপ্তাহ পূর্বে সে ঘাঘট নদীর বড়গয়েশ্বপুর খেয়া ঘাটের  পশ্চিম দুর্গাপুর গ্রামের হাই দারোগার শালা শাহিন মিয়ার জমি ভরাট করেন । এটি শেষ করে আবার নতুন করে পাশেই বোডিং করে অন্য আরেক জায়গা থেকে বালু ‍উত্তোলন করছেন । আরো অভিযোগ রয়েছে শুকনো মৌসুমে নদী থেকে বালু উত্তোলন করে নদী রক্ষা বাঁধের কিছু অংশ কেটে কাকড়া দ্বারা পরিবহন করছেন । এই কাটা অংশ এখন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে রয়েছে ।

গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ড বিষয়টি জেনেও না জানার ভান করে আসছে । এভাবে নদীর একই স্থানে বারবার সে যেভাবে বোর্ডিং করে বালু উত্তোলন করে আসছেন দেখলে মনে হয় এটি যেন তার ইজারা সম্পত্তি ।

এলাকাবাসী সাইফুলের অভিযোগ মুজিবরের এহেন অপকান্ডের মুখে আমার সহ আশেপাশের আবাদি জমি সহ নদী রক্ষা ভেঙ্গে যাচ্ছে । যেকোনো সময়ে মারাত্মক ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। বালু বোডিং গর্তে পড়ে এবছরে এবং গত বছরে দুজন শিশুর মৃত্যু হয়েছে ।

কর্তৃপক্ষ, এলাকার সার্বিক দিক বিবেচনা পূর্বক বডিংকৃত ড্রেজার মেশিনটি দ্রুত অপসারণের ব্যবস্থা করবেন ,এমনটাই প্রত্যাশা সাইদুলসহ ভুক্তভোগী মহলের ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: