রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
শিরোনাম
নোটিশ

জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ : সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকার জন্য গাইবান্ধা  জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা , উপজেলা, থানা, বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান/এলাকায় প্রনিতিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবিসহ সরাসরি অথবা ডাকযোগে সম্পাদক বরাবর আবেদন করুন

প্রকাশক সম্পাদক, সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে , গোডাউন রোড, কাঠপট্টী, গাইবান্ধা। ফোন: : ০১৭১৫-৪৬৪৭৪৪, ০১৭১৩-৫৪৮৮৯৮,

প্রতারণার মাধ্যমে বিয়ে

অনলাইন ডেস্ক / ৮৯ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ১৯ আগস্ট, ২০২১, ৬:৫৪ অপরাহ্ন

ভুয়া তথ্য দিয়ে বিয়ে, প্রতারণা ও ব্ল্যাকমেইলিং করে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অপচেষ্টার অভিযোগে রাজধানীতে স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তানভীর কামাল তন্ময় (২৮) নামে এক যুবক।

আদাবর থানায় বৃহস্পতিবার করা মামলায় স্ত্রী আলিনা রামিসা তাব্বাসুমকে (২১) একমাত্র আসামি করা হয়েছে। এজাহারে বলা হয়, আলিনা একাধিক পাসপোর্ট, ভিন্ন ভিন্ন জন্মতারিখ ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আইডি কার্ড ব্যবহার করে প্রতারণা করেছেন। সর্বশেষ তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টের স্থিতি ৮৬ লাখ ৭২ হাজার টাকা। বেপরোয়া ও উচ্ছৃঙ্খল আচরণে অতিষ্ঠ হয়ে গত বছর ৯ নভেম্বর আপন মা কলাবাগান থানায় মেয়ে আলিনার বিরুদ্ধে জিডি করেন। অভিযোগের ব্যাপারে জানতে আসামির দুটি মোবাইল নম্বরে ফোন দেওয়া হলেও বন্ধ পাওয়া যায়। আদাবর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী শাহীদুজ্জামান যুগান্তরকে বলেন, মামলার তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষ হলে বিস্তারিত জানা যাবে।

মামলার এজাহারে জানা গেছে, আলিনার বাবার নাম মামুনুর রহিম। ঠিকানা- এসকে ভ্যালি ৩৯০বি খিলগাঁও। ফেসবুকের মাধ্যমে তন্ময়ের সঙ্গে আলিনার বন্ধুত্ব হয়। একপর্যায়ে তাদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠলে আলিনাকে বিয়ে করবেন বলে তন্ময় তার পরিবারকে জানায়। তখন তারা তন্ময়কে আলিনার বায়োডাটা আনতে বলেন। ওই বায়োডাটায় লেখা ছিল আলিনা একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তার বাবা একজন পিএইচডিধারী ও মামা শিল্পপতি। এরপরও বিয়েতে অসম্মতি ছিল পরিবারের। শেষ পর্যন্ত ছেলের জোরাজুরিতে বিয়েতে সম্মতি দিলেও পরিবারের পক্ষ থেকে শর্ত দেওয়া হয়, বিয়ের পর স্ত্রীকে নিয়ে আলাদা বাড়িতে থাকতে হবে।

তন্ময় আরও জানান, পরিবারের কথামতো বিয়ের পর আলিনাকে নিয়ে তিনি আদাবর এলাকায় ভাড়াবাড়িতে ওঠেন। কিন্তু বিয়ের কিছুদিন পরই জানতে পারেন, বাবার পরিচয় ঠিক থাকলেও তার মায়ের পরিচয় আলিনা লুকিয়েছে। এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে আলিনা জানায়, তার মা-বাবার মধ্যে বিচ্ছেদ হয়েছে অনেক দিন আগে। তার মা এখন যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন। নানার বাড়িতে তিনি বড় হয়েছেন। এদিকে তন্ময় তার স্ত্রীর বিভিন্ন ফাইল ঘেঁটে একটি জিডির কপি পান। সেই জিডি আলিনার বিরুদ্ধে তার নিজের মা করেছিলেন। এ বিষয়ে আলিনাকে প্রশ্ন করলে কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি বলে জানান তন্ময়। ব্যক্তিগত কাগজপত্রে হাত দেওয়ায় কথা কাটাকাটিও হয় তাদের।

তন্ময় আরও জানান, বিয়ের কয়েক মাস পর তিনি লক্ষ করেন আলিনা তার বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো অনলাইন ক্লাস করছেন না। পরে খোঁজ নিয়ে দেখেন তিনি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নন। তাকে মিথ্যা তথ্য দিয়েছেন। এসব নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর দূরত্ব বাড়তে থাকে। একপর্যায়ে আলিনার প্রতি তিনি বিশ্বাস হারিয়ে ফেলেন। সর্বশেষ আলিনার বিষয়ে বড় একটি তথ্য নাড়িয়ে দেয় তন্ময়কে। তিনি ব্যক্তিগত ফাইল ঘেঁটে দেখেন আলিনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৪৬ লাখ টাকার একটি লেনদেন হয়েছে। এত বিশাল অঙ্কের টাকা কোথা থেকে এসেছে জানতে চাইলে আলিনা কোনো উত্তর দিতে পারেননি তন্ময়কে। আর এসব ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত ১৭ জুন আলিনা ও তন্ময়ের মধ্যে তুমুল ঝগড়া ও মারধর হয়। এতে দুজনই আহত হন। ঝগড়া দেখে তাদের পাশের ফ্ল্যাটের ভাড়াটিয়া আদাবর থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। দুজন আইনি কোনো পদক্ষেপ নেবেন কিনা জানতে চাইলে তারা পুলিশকে জানান, স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া নিজেদের মধ্যে মিটিয়ে নেবেন। এরপর পুলিশ চলে যায়। কিন্তু তাদের মধ্যে মিল হয়নি। ওইদিন রাতের ঘটনার পর থেকেই আলিনা ও তন্ময় আলাদা থাকেন। এ বিষয়ে তন্ময় বলেন, গত ১৭ জুন রাতের ঘটনার পর আলিনার সঙ্গে বিষয়টি পারিবারিকভাবে মিটমাটের চেষ্টা করি। তখন সে আমার কাছে সিকিউরিটি মানি হিসেবে ৫৪ লাখ টাকা দাবি করে। এত টাকা আমার পক্ষে দেওয়া কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

এছাড়া সে এখন আমার পরিবারকে জড়িয়ে নানা ধরনের মিথ্যাচার করছে। এ বিয়ের সঙ্গে আমার পরিবারের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। আমার ধারণা, আলিনা একটি চক্রের সদস্য। ওই চক্রের মাধ্যমে আমাকে ব্ল্যাকমেইলিং করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: