শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:১৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশ

জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ : সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকার জন্য গাইবান্ধা  জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা , উপজেলা, থানা, বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান/এলাকায় প্রনিতিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবিসহ সরাসরি অথবা ডাকযোগে সম্পাদক বরাবর আবেদন করুন

প্রকাশক সম্পাদক, সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে , গোডাউন রোড, কাঠপট্টী, গাইবান্ধা। ফোন: : ০১৭১৫-৪৬৪৭৪৪, ০১৭১৩-৫৪৮৮৯৮,

গাইবান্ধায় মানসিক ভারসাম্যহীন শিকল সেলিম পেল স্বাভাবিক জীবন কর্মস্থল

স্টাফ রিপোর্টার / ৭৩ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:৩৫ পূর্বাহ্ন

গাইবান্ধার সদরের নশরতপুরে মানসিক ভারসাম্যহীন অসহায় সেলিমকে সদাইসহ দোকানঘর ও নগদ অর্থ উপহার দিয়ে মানবিকতার পরিচয় দিলেন গাইবান্ধা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম।
গাইবান্ধা জেলা পুলিশের আয়োজনে বুধবার সকালে সদর উপজেলার গণ উন্নয়ন কেন্দ্র অফিস সংলগ্ন নশরতপুরে মানসিক ভারসাম্যহীন শিকল বাধা জীবন হতে মুক্তি চিকিৎসা সেবা পাওয়ার পর বর্তমানে সুস্থ্য অসহায় কর্মহীন সেলিমকে তার বাসার পাশে কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ফিতা কেটে ” সদাইপাতি” নামে গালামালসহ দোকানঘর উদ্বোধন করেন গাইবান্ধা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম। সেই সাথে তাকে চলার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- সদর থানা অফিসার ইনচার্জ মাসুদুর রহমান, গাইবান্ধা ট্রাফিক ইনচার্জ নূর আলম সিদ্দিক, ট্রাফিক সার্জেন্ট তৌহিদুল ইসলাম ,টিএসআই রেজা, অত্র এলাকার ইউপি সদস্য ছাবেদ আলী, বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি গৌতম আসিস গুহ, সমকালের জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল চক্রবর্তী, দৈনিক নতুন দিন পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি সঞ্জয় সাহা, বৈশাখী টিভির প্রতিনিধি এস,এম বিপ্লব ইসলাম, এস,এ টিভির প্রতিনিধি কায়সার প্লাবন, দৈনিক খবরপত্র প্রতিনিধি আমিনুর রহমান, পুলিশ সদস্য সহ এলাকাবাসীবৃন্দ।
পুলিশ সুপার মুহাম্মাদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন- জেলা পুলিশ তাদের সরকারি কাজের পাশাপাশি বিভিন্ন মানবিক কাজ করে থাকেন এবং তা অব্যাহত আছে। ইতিমধ্যে করনায় আক্রান্তদের নিশ্চিত করা সহ পরিবারের কোনো সমস্যা হলে তাদের খাবারের ব্যবস্থা করেছে জেলা পুলিশ। এরই ধারাবাহিকতায় সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসাবে তাকে এই সহযোগীতা করা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন- ২০২০ সালের ৮ই জুন বিভিন্ন গণমাধ্যম ও ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পারি সেলিম নামে একজন মানসিক প্রতিবন্ধী রয়েছে এবং শিকলে বাধা। চিকিৎসার অভাবে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। পরে ১৪ জুন পাবনায় মানসিক হাসপাতালে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে চিকিৎসার ব্যবস্থা করলে ৪ মাস চিকিৎসাধীন থাকার পর স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসে। এবং সেলিম যেন ভালভাবে জীবিকা নির্বাহ করতে পারে সে জন্য তাকে মালসহ দোকানঘর ও নগদ অর্থ উপহার প্রদান করেন। এছাড়াও অন্য কারো পরিবারের খাদ্য সংকট থাকলে তাদের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়ানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেন পুলিশ সুপার।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: