শুক্রবার, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৭ পূর্বাহ্ন

‘আমি যা করি সেটাই দেখি খবর হয়ে যায়’

বিনোদন ডেস্ক / ৮০ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৫:৪৩ অপরাহ্ন

টালিউডের কনট্রোভার্সি কুইন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। তিনি যা করেন তা নিয়েই একশ্রেণির নেটিজেন বিতর্কে মাতেন। এ নিয়ে নায়িকার স্বগোক্তি- ‘আমি যা করি সেটাই দেখি খবর হয়ে যায়’।

অবশ্য এ জন্য এ নায়িকা নিজেই দায়ী। ব্যক্তিজীবনে এ পর্যন্ত বিয়ে-বিচ্ছেদের খবরে কতবার শেষে সংবাদ শিরোনামে এসেছেন তার হিসেব নেই।

সর্বশেষ বিচ্ছেদ ঘটনা রোশন সিংয়ের সঙ্গে। গত এক বছর ধরে আলাদা থাকছেন রোশন-শ্রাবন্তী। কিন্তু শ্রাবন্তীর সঙ্গে আবারও সংসার করতে মরিয়া রোশন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট দিয়ে শ্রাবন্তীর অভাববোধটা বুঝিয়ে দেন তিনি। ফের সংসার করতে চেয়ে মাস দুয়েক আগে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন রোশন। তবে রোশনের সেসব পোস্ট ও তর্জনগর্জনে বরাবরই নীরব থেকেছেন শ্রাবন্তী। তিন দিন আগে রোশন তার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে যুগলদের ভিড়ে একা দাঁড়িয়ে থাকা এক যুবকের ছবি পোস্ট করে লেখেন, ‘মাই কণ্ডিশন’। রোশন বোঝাতে চাইছেন, শ্রাবন্তীকে ছাড়া তিনি বড় একা! এরপর গত বুধবার প্রয়াত বলিউড অভিনেত্রী সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে নিজের ছবি শেয়ার করেন রোশন। প্রয়াত এ তারকার ছবিটি দিয়ে রোশন বোঝাতে চাইলেন, সুশান্তের মতো তিনিও নিঃসঙ্গ। সুশান্তের মতো হতাশা, অবসাদে ডুবে যাচ্ছেন তিনি। নিজেকে শেষ করেও দিতে পারেন সুশান্তের মতো! রোশনের ওই দুটি পোস্টের পরই একটু যেন নড়েচড়ে বসলেন শ্রাবন্তী। আবেগী হয়ে পড়লেন, যা ছুঁয়ে গেল এ নায়িকাকে।

বুধবার রাতেই একটি ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট শেয়ার করলেন শ্রাবন্তীও। তিনি একটি ছবি পোস্ট করেছেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, ঠোঁটে আঙুল রেখে কাউকে চুপ থাকার ইশারা করছেন। ক্যাপশনের যথেষ্ট অর্থপূর্ণ বাক্য লিখেছেন, ‘বুঝেছি, তুমি নীরবতার মানে বুঝতে শুরু করেছ। এর থেকে শিক্ষাও নিচ্ছ। নীরবতারও নিজস্ব অর্থ এবং আলাদা মাত্রা রয়েছে। নেটিজেনদের মতে, এমন ক্যাপশনের মাধ্যমেই অভিনেত্রী বুঝিয়ে দিলেন, এত দিন ধরে রোশনের যাবতীয় কটাক্ষ, কটূক্তির নীরব প্রতিবাদ জানিয়েছেন তিনি। বিষয়টি রোশনের চোখ খুলে দিয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: