মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

গাইবান্ধার ডিপিইও ও শিক্ষিকার তেলেসমাতি কান্ড

স্টাফ রিপোর্টার / ৫৫৮ Time View
Update : সোমবার, ২২ নভেম্বর, ২০২১, ৫:১৯ অপরাহ্ন

কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই ৪১৭ দিন আমেরিকায় অবস্থানসহ বিনা অনুমতিতে মোট ৫২৬ দিন কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকলেও বহাল তবিয়তে আছেন সাদুল্যাপুর উপজেলার তাজনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানা।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হলেও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মাত্র ৩৩ দিনের মাথায় রুহিনা সুলতানাকে লঘু দন্ডের নামে তিরস্কার করে অব্যাহতি দেন। অধিকতর তদন্ত না করে মাত্র ৩৩ দিনে তরিঘরি করে বিভাগীয় মামলা নিস্পত্তি হওয়ায় বিষয়টি ডিপিইও মোঃ হোসেন আলী ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানার তেলেসমাতি কান্ড বলে অনেকেই মনে করেন।

এক্ষেত্রে বিরাট অংকের উৎকোচ লেনদেন হয়েছে বলে নাম পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সূত্রে জানা গেছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়ের স্মারক নংঃ জেপ্রাশিঅ / গাই /২০২১ /১৫৪৪ / ৩ তারিখ ০১-০৯-২১ মোতাবেক ২০-৩-২০২০ তারিখ থেকে রুহিনা সুলতানা কর্তৃপক্ষের বিনা অনুমতিতে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকার অভিযোগে বিভাগীয় মামলা ও অভিযোগ নামা গঠন করা হয়।

অনুসন্ধানে জানা যায়, রুহিনা সুলতানা ৯-১০-২০২০ইং বাংলাদেশ থেকে আমেরিকা (নিউইয়র্ক) যান। দীর্ঘ ৪১৭ দিন আমেরিকায় (নিউইয়র্ক) অবস্থান করে ৩১-০৮-২০২১ইং তারিখে রুহিনা সুলতানা বাংলাদেশে আসেন।

আমেরিকায় যাওয়ার আগে ২০-৩-২০২০ইং থেকে রুহিনা সুলতানা কর্তৃপক্ষের বিনা অনুমতিতে কর্মস্থলে অনুপস্থিত ছিলেন। কোন সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারীর যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই তথ্য গোপন করে আন্তজার্তিক পার্সপোর্ট গ্রহন ও বিদেশ গমন দন্ডনীয় অপরাধ। শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানার বিরুদ্ধে তথ্য গোপন করে পার্সপোর্ট গ্রহন ও বিদেশ গমনের মত গুরুতর অপরাধের সুস্পষ্ট অভিযোগ উত্থাপিত হলেও অভিযোগ সম্পর্কে বিদেশ গমনের সাথে সম্পৃক্ত সংশ্লিষ্ট দপ্তর গুলোসহ অধিকতর বিস্তারিত তদন্ত না করে তরিঘরি করে মাত্র ৩৩ দিনের মাথায় গাইবান্ধা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার অভিযোগ নিস্পত্তি করায় অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করছেন।

তবে এ বিষয়ে মতামত জানতে রুহিনা সুলতানাকে ফোন দেয়া হলে তিনি আমেরিকায় যাওয়া-আসার কথা অস্বীকার করে বলেন,“আমি কখনও আমেরিকায় যাইনি”। এদিকে, বিরাট অংকের উৎকোচ নিয়ে তরিঘরি করে বিভাগীয় মামলাটি নিস্পত্তি করার বিষয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে প্রশ্ন করা হলে তিনি তা অস্বীকার করেন।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আরো জানান,উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের দেয়া প্রতিবেদনের আলোকে শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানাকে অভিযোগ থেকে অব্যহতি দেয়া হয়।

** কোন সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারীর যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই তথ্য গোপন করে আন্তজার্তিক পার্সপোর্ট গ্রহন ও বিদেশ গমন দন্ডনীয় অপরাধ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: