fbpx
রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৬:৩৪ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি :

জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ : সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে পত্রিকার জন্য গাইবান্ধা জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলা, থানা, বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান/এলাকায় প্রনিতিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবিসহ সরাসরি অথবা ডাকযোগে সম্পাদক বরাবর আবেদন করুন।প্রকাশক ও সম্পাদক, সাপ্তাহিক গাইবান্ধার বুকে , গোডাউন রোড, কাঠপট্টী, গাইবান্ধা। ফোন: : ০১৭১৫-৪৬৪৭৪৪, ০১৭১৩-৫৪৮৮৯৮

শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানা আবারো বিদেশে : গাইবান্ধা (ডিপিইও)’র ভূমিকা রহস্যজনক

ষ্টাফ রিপোর্টার / ৪০৮ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২২, ১১:৫৪ পূর্বাহ্ন

সাদুল্যাপুর উপজেলার বহুল আলোচিত সেই শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানা কাউকে না জানিয়ে আবারো বিদেশে পারি জমিয়েছেন এমন খবরে নতুন করে গুঞ্জন উঠেছে।

কর্তৃপক্ষের বিনানুমতিতে ৪১৭ দিন আমেরিকায় অবস্থানসহ টানা ৫২৬ দিন কর্মস্থলে অনুপস্থিতির অপরাধে বিভাগীয় মামলা হলেও গাইবান্ধা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের (ডিপিইও) যোগসাজসে বিভাগীয় মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়ে বকেয়া বেতন ভাতা হাতিয়ে নিয়ে পুনরায় বিদেশে গিয়েছেন সেই সহকারী শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানা।

জানা গেছে, সাদুল্লাপুর উপজেলার তাজনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা রুহিনা সুলতানা কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই ২০২০ সালের ২০ মার্চ ইং থেকে ২০২১ সালের ৩১ আগষ্ট ইং পর্যন্ত পর্যন্ত টানা ৫২৬ দিন কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকেন। ২০২০ সালের ৯ অক্টোম্বর থেকে ২০২১ সালের ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত রুহিনা সুলতানা স্বামীর কর্মস্থল আমেরিকা (নিউইয়র্ক) অবস্থান করেন। এ ঘটনায় বিভাগীয় মামলা হলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হোসেন আলী কৌশলে রুহিনা সুলতানাকে তরিঘরি করে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেন। অব্যাহতি পেয়ে রুহিনা সুলতানা বকেয়া বেতনের কয়েক লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে পুনরায় আমেরিকা যান।

রুহিনা সুলতানা পুনরায় ২০২১ সালের ৩০ অক্টোম্বর থেকে কর্মস্থলে অনুপস্থিতির ঘটনায় সাদুল্লাপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবদুল্যাহিল শাফী জানান, রুহিনা সুলতানার কর্মস্থলে অনুপস্থিতির বিষয়ে শোকজ করা হয়েছে। প্রাপক বিদেশে থাকায় পিয়ন চিঠিটি ফেরৎ দিয়েছেন।

পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণের লক্ষে বিষয়টি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে জানানো হয়েছে। এদিকে খোজ নিয়ে জানা যায়, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করেন নাই। ফলে, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হোসেন আলীর বিরুদ্ধে উঙ্খাপিত অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষে বিভাগীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ারও জোর দাবী উঠেছে।

এ ব্যাপারে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ গ্রহণ করা আবশ্যক বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করেন। (ফলোআপ-১)


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

সব খবর...
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: